দেশে প্রথম করোনার টিকা পাচ্ছেন নার্স রুনু

দেশে করোনাভাইরাসের টিকাদান কর্মসূচি শুরু হচ্ছে আগামীকাল বুধবার। রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র নার্স রুনু বেরুনিকা কস্তাকে এই কার্যক্রম শুরু হবে।

রুনুর পর আরও দুই নার্সকে টিকা দেয়া হবে। একই সঙ্গে এদিন টিকা নেবেন তিন চিকিৎসক। টিকাদানের সব প্রস্তুতি এরইমধ্যে সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

বুধবার বেলা ৩টায় ভার্চুয়াল মাধ্যমে টিকা কার্যক্রম উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। পরপরই কোভিড-১৯ এর টিকা পাবেন রুনু। আর সারাদেশে টিকাদান কর্মসূচি শুরু হবে ৭ ফেব্রুয়ারি।

পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে কুর্মিটোলা হাসপাতালের একজন নার্স জানান, রুনুসহ হাসপাতালটির তিনজন নার্স এবং তিনজন চিকিৎসক বুধবার এই টিকা পাচ্ছেন।

টিকা প্রদানের জন্য যে তালিকা করা হয়েছে, সে অনুযায়ী প্রথমে টিকা নেবেন ডায়ালাইসিস ইউনিটের ইনচার্জ ও সিনিয়র স্টাফ নার্স রুনু বেরুনিকা কস্তা। এরপর ফিমেল মেডিসিন ইউনিটের ইনচার্জ ও সিনিয়র স্টাফ নার্স মুন্নি খাতুন এবং একই ইউনিটের নার্স রিনা সরকার। হাসপাতালটির চিকিৎসকদের মধ্যে টিকা নেয়ার তালিকায় প্রথমে রয়েছেন কনসালট্যান্ট লুৎফর কবির মবিন ও শাহরিয়ার আলম। তবে আরেক চিকিৎসকের নাম এখনো নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

জানা গেছে, টিকা পাবেন এমন তালিকায় থাকা ব্যক্তিদের শেষ মুহূর্তের শারীরিক অবস্থা দেখেই তাদেরকে টিকা দেয়া হবে। এক্ষেত্রে কারো শারীরিক সমস্যা থাকলে তালিকায় রদবদলও আসতে পারে।

কু‌র্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের প‌রিচালক ব্রিগেডিয়ার জা‌মিল আহমেদ জানান, বুধবার টিকা প্রয়োগের সব প্রস্তুতি শেষ করা হয়েছে। অন্যদিকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে করোনাভাইরাসের প্রথম টিকা নিচ্ছেন ডা. ফরহাদ উদ্দিন হাসান চৌধুরী। তিনি টিকা পাচ্ছেন বৃহস্পতিবার।

ঢাকা মেডিক্যালের মেডিসিন অ্যান্ড ইনফেকশন বিশেষজ্ঞ ডা. ফরহাদ উদ্দিন হাসান চৌধুরী বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ডা. ফরহাদ বলেন, ‌‌‍‍‘আগামী বৃহস্পতিবার টিকা কার্যক্রমের উদ্বোধন হবে বলে নিশ্চিত করেছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এখন পর্যন্ত টিকা নেয়ার তালিকায় আমিই প্রথমে আছি। সবকিছু ঠিক থাকলে আমিই ঢামেকে সবার আগে টিকা নিচ্ছি।’

চিকিৎসক বলেন, ‘টিকা গ্রহণ নিয়ে জনমনে আতঙ্ক তৈরি হয়েছে। মূলত এটা দূর করার জন্য যারা চিকিৎসক-নার্সসহ ফ্রন্টলাইনার রয়েছেন, তারা প্রথম টিকা নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আমাদের এই উদ্যোগটা মূলত সাধারণ মানুষকে সচেতন করার জন্যই। এটা সাকসেসফুল হলে আশা করি সারা দেশের মানুষ উৎসবমুখর পরিবেশে এই টিকা গ্রহণ করবে।’

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাজমুল হক জানান, সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী বৃহস্পতিবার উৎসবমুখর পরিবেশে টিকা দেয়া শুরু হবে। প্রথমে চিকিংসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীদের টিকা পাবেন। হাসপাতালের নিরাপত্তায় নিয়োজিত আনসার সদস্যদের ধারাবাহিকভাবে টিকা দেয়া হবে। টিকা দেয়ার পরে ওই ব্যক্তিকে ৩০ মিনিট পর্যবেক্ষণে রাখা হবে।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরি বিভাগের আন্ডারগ্রাউন্ডে টিকা দেয়ার স্থান নির্ধারণ করেছে কর্তৃপক্ষ।

সূত্র-(ঢাকাটাইমস/২৬জানুয়ারি/কারই/জেবি)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*